সিবিআই-পুলিশ দ্বৈরথের জের, তুমুল হট্টগোল, দফায় দফায় মুলতবি সংসদ

0
42

 সিবিআই ও কলকাতা পুলিশের দ্বৈরথের আঁচ গিয়ে পড়ল সংসদে। দিনভর দফায় দফায় মুলতবি হয় সংসদের ২ কক্ষ। লোকসভা মোট ৩ বার মুলতবি হয়। রাজ্যসভায় কোনো কার্যাবলী ছাড়াই হট্টগোলের জেরে দিনের মতো মুলতবি হয়ে যায়। সংসদের অধিবেশন শুরু হতেই বিরোধীরা একজোট হয়ে সরকারকে চেপে ধরে। আসরে নামেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনিও পরের পর বিস্ফোরক মন্তব্যে মমতা
সরকারকে ঘায়েল করার চেষ্টা করেন।

দেশের ইতিহাসে এটা নিজিবিহীন ঘটনা। সংসদে দাঁড়িয়ে একের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের। তাঁর কথায়, রবিবার সন্ধ্যায় কলকাতা পুলিশ ও সিবিআইয়ের লড়াই- দেশের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা। তিনি আরো বলেন, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে  সিবিআই তদন্ত করছে, অথচ সেই কাজে বাধা দেওয়া হচ্ছে। তাঁর অভিযোগ, কলকাতা পুলিশ কমিশনার তদন্তে অসহযোগিতা করছেন। সিবিআই তাঁর সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিল। অথচ তাঁদের বাধা দেওয়া হয়। তদন্তের স্বার্থে আক্রান্ত হন সিবিআই আধিকারিকরা। রাজনাথ বলেন, মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করব, সিবিআইকে যেন কাজ করতে দেওয়া হয়।

এদিকে এই নিয়ে রাজ্যপালকে ফোন করেন রাজনাথ। রিপোর্ট চাইল কেন্দ্র। কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে বলেন, সিবিআইকে ব্যবহার করে বিরোধীদের শেষ করে দেওয়ার চেষ্টা করছে সরকার। বিজেডির ভার্তুহারি মেহতাব বলেন, গত কয়েক মাস ধরে সিবিআই যে ভাবে কাজ করছে, এটা কোনো পেশাদার আচরণ হতে পারে না। বিরোধী মুলতবি প্রস্তাব দেয় স্পিকার সুমিত্রা মহাজনের কাছে। তিনি বলেন, জিরো আওয়ারে এই নিয়ে আলোচনা হবে। তৃণমূল সাংসদরা এই নিয়ে আলোচনার দাবিতে তুমুল হট্টগোল শুরু করেন। তাঁদের সমর্থন করেন অন্যান্য বিরোধী দলের সাংসদরা। সংসদের অধিবেশন শুরু আগেই তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন বিরোধী নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। কীভাবে এই ইস্যুতে সরকারকে চেপে ধরা হবে, সেই নিয়ে রণকৌশল ঠিক করেন। তারপর সভা শুরু হতেই আসরে নামেন তাঁরা। এর জেরে দফায় দফায় মুলতবি হয়ে সংসদের নিম্ন কক্ষ। ১ ফেব্রুয়ারি লোকসভায় অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশ হয়েছে। এদিন এই নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হট্টগোলের জেরে শেষপর্যন্ত বাজেট নিয়ে আলোচনা হয়নি।

একই ছবি দেখা যায় সংসদের উচ্চকক্ষেও। হট্টগোলের জেরে কোনো কার্যাবলী হতে পারেনি। দিনের মতো মুলতবি হয়ে যায় রাজ্যসভাও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here