রোহিঙ্গাদের ওপর যৌন সহিংসতা যুদ্ধাপরাধের শামিল : রাষ্ট্রসংঘ

0
42

 রাষ্ট্রসংঘ বলেছে, মায়ানমারে রোহিঙ্গা নারী এবং কিশোরীদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনী যে পাশবিকতা চালিয়েছে তা যুদ্ধাপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে।
সংঘর্ষ পীড়িত এলাকায় যৌন সহিংসতা বিষয়ক রাষ্ট্রসংঘের প্রতিনিধি প্রমিলা প্যাটেন গত বুধবার নিউইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর মায়ানমার সেনাবাহিনীর নৃশংসতা যুদ্ধাপরাধের শামিল ও মানবাধিকারের মৌলিক লঙ্ঘন।
তিনি বলেন, “রোহিঙ্গাদেরকে মায়ানমার ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য করতে নারীদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনী যৌন সহিংসতা চালিয়েছে। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে পুরোপুরি শেষ করে দিতে তাদের ওপর ভয়ঙ্কর নিপীড়ন চালানো হয়েছে।”
মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চলমান সেনা অভিযান রোহিঙ্গাদের জাতিগতভাবে নির্মূল করার জন্যই চালানো হচ্ছে বলে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনার যাইদ বিন রাআদ আল হুসাইন এর আগে যে ব্ক্তব্য দিয়েছিলেন তার সঙ্গে তিনি সম্পূর্ণ একমত বলেও উল্লেখ করেন প্যাটেন।
চলতি মাসের শুরুতে বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় শিবির পরিদর্শন করেন প্যাটেন। মায়ানমার সেনাবাহিনীর যৌন নির্যাতনের শিকার অনেক নারীর সঙ্গে নিজে কথা বলেছেন বলেও জানান তিনি।
২৫ আগস্ট থেকে দেশটির সেনাবাহিনী ‘কিলিং অভিযান’ শুরুর পর মায়ানমার থেকে এখন পর্যন্ত মোট কত রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করে তা নির্দিষ্ট করে বলা না গেলেও জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর বাংলাদেশ মুখপাত্র ভিভিয়ান ট্যান জানান, আগস্ট মাস থেকে এ পর্যন্ত ৬ লাখ ২২ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here