তালাকে জেল, মুসলমান মহিলাদের পাশে মোদী সরকার, পাশ নয়া বিল

0
35

আগেই সুপ্রিম কোর্ট ‘তিন তালাক’ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছিল। এর পরে দরকার ছিল আইন। সংসদে শীতকালীন অধিবেশন শুরুর দিনেই সেই বিল পাশ হল মন্ত্রিসভায়।

শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই মন্ত্রিসভায় পাশ হল ঐতিহাসিক বিল। আগেই সুপ্রিম কোর্ট ‘তিন তালাক’ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছিল। এর পরে দরকার ছিল আইন। সংসদে শীতকালীন অধিবেশন শুরুর দিনেই সেই বিল পাশ হল মন্ত্রিসভায়। এই বিল অনুসারে যে কোনও রকম তালাক দিলেই জেলের সাজা হতে পারে। বিলে বিবাহ বিচ্ছেদের পরে সন্তানের দায়িত্ব নেওয়ার ব্যাপারে মুসলমান মহিলাদের অধিকারও দেবে।
গত মাসেই সব রাজ্য সরকারকে চিঠি দিয়ে কেন্দ্র জানিয়েছিল যে, শীতকালিন অধিবেশনে তালাক নিষিদ্ধ করার বিষয়ে একটি বিল আসতে চলেছে। নতুন এই ‘মুসলিম ওম্যান প্রোটেকশান অফ রাইটস অন ম্যারেজ বিল’-এ জম্মু-কাশ্মীর ছাড়া দেশের অন্যত্র যে কোনও রকম তালাককে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। কয়েক দিনের মধ্যেই এই বিল সংসদে পেশ করতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার।
এখনও পর্যন্ত যা জানা গিয়েছে, নতুন এই বিল আইনে পরিণত হলে তাৎক্ষণিক তালাকে তিন বছর পর্যন্ত জেলের সঙ্গে জরিমানা দিতে হবে। মৌখিক, লিখিত বা অন্য ভাবে— সব তালাকই নিষিদ্ধ বলা হয়েছে বিলে।
শুধু তাই নয়, বিবাহবিচ্ছেদের পরে মুসলমান মহিলারা যাতে খোরপোষ পেতে পারেন বা সন্তানের দায়িত্ব নিতে পারেন সেই অধিকারের উল্লেখও রয়েছে এই বিলে।
গত অগস্ট মাসে সুপ্রিম কোর্ট এক ঐতিহাসিক রায়ে ভারতে তালাক নিষিদ্ধ করে। এটা বরবারই বিজেপির এজেন্ডা ছিল। তালাক নিষিদ্ধ করার ক্ষেত্রে নরেন্দ্র মোদী সরকার প্রথম থেকেই উদ্যোগী হয়। গত উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে সাফল্যের পিছনে মুসলমান সমাজের মহিলাদের সমর্থন বিজেপির ঝুলিতে আসে বলেও দাবি করে গেরুয়া বাহিনী। এবার আইন তৈরিতেও সমান উদ্যোগী কেন্দ্র।
সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিল প্রণয়নের জন্য অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এবং আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদকে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করেন। সেই কমিটিই বিলের খসড়া তৈরি করেছে।
সংশোধন— এই প্রতিবেদন প্রথম প্রকাশের সময়ে অসাবধনতাবশত সংসদে বিল পাশ হয় বলে লেখা হয়। আসলে বিলটি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় পাশ হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here