এবার ডিফেন্সে ব্যাট ধরলেন নভজোৎ সিং সিধু। মাসুদ আজহারকে কারা মুক্তি দিয়েছিল?

0
116

পুলওয়ামা হামলার পর তাঁর পরের পর মন্তব্য নিয়ে কম সমালোচনা হয়নি। এবার ডিফেন্সে ব্যাট ধরলেন নভজোৎ সিং সিধু। আক্রমণাত্মক মেজাজে বিজেপিকে তাঁর প্রশ্ন, সকলে কী ১৯৯৯ সালের কান্দাহার বিমান অপহরণের ঘটনা ভুলে গিয়েছেন?‌ সেসময় কারা জৈশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি মাসুদ আজহারকে মুক্তি দিয়েছিলেন?‌ সেসময় সরকার ছিল বিজেপির। এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে এভাবেই বিজেপিকে আক্রমণ করেন তিনি।

পুলওয়ামা হামলার পর প্রথমে তিনি বলেছিলেন, আলোচনার মাধ্যমে স্থায়ী সমাধান খোঁজা দরকার। এরপর বলেন, একটি জঙ্গি হামলার জন্য গোটা পাকিস্তানকে দায়ী করা উচিত নয়। মুহূর্তে সিধুর বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতারা। কপিল শর্মার কমেডি শো থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয় সিধুকে। পরের দিন সিধু সাংবাদিক বৈঠককে নিজের মন্তব্যের সপক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেছিলেন, আমার মন্তব্যের অপব্যাখ্যা করা হয়েছে। কিন্তু সমালোচনা তাতেও থামেনি। সোমবার পাঞ্জাব বিধানসভায় সিধুকে অপসারণের দাবিতে সরব হয়েছিলেন কংগ্রেস বিধায়করা। এককথায় সিধুকে দেশদ্রোহী হিসেবেই চিহ্নিত করা হয়েছিল। চারিদিকে আওয়াজ ওঠে ভারত থেকে বিদায় নাও সিধু। চলে যাও পাকিস্তানে। এই রব আগেও উঠেছে বহুবার। বেগদিক দেখে আসরে নামতে দেরি করলেন না এই প্রাক্তন ক্রিকেটার। একসময়ের পেশাদার ক্রিকেটার ডিফেন্সটা যে ভালো করেই জানেন সেটা বুঝিয়ে দিলেন সোমবার। সাংবাদিক বৈঠক করে বিজেপির বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন তিনি। টেনে আনেন কান্দাহার প্রসঙ্গ। তাঁর কথায়, সেই সময় জৈশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি মাসুদ আজহারকে মুক্তি দিয়েছিল বিজেপি সরকার। সেকথা দেশ ভোলেনি।‌ তখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। সিধুর দাবি, কয়েকদিন আগেই যাঁর প্রয়াণের পর নাম বদলের রাজনীতিতে মেতেছিল বিজেপি।


সেই বিজেপি প্রধানমন্ত্রীর শাসনকালেই কান্দাহার বিমান অপহরণ কাণ্ড ঘটেছিল। ১৮০ জন যাত্রীকে নিয়ে ওড়া বিমান অপহরণ করেছিল জঙ্গিরা। তিন দুর্ধর্ষ জঙ্গিকে মুক্তি দিয়ে ১৮০ জন যাত্রীকে ফিরিয়ে এনেছিল ভারত সরকার। এই তিন দুর্ধর্ষ জঙ্গির মধ্যে ছিল মাসুদ আজহার।


সেই পুলওয়ামা হামলার মূল ষড়যন্ত্রকারী। তখন মাসুদ আজহারকে মুক্তি দেওয়ার কারণেই আজ এত জন জওয়ানকে শহিদ হতে হল বলে পাল্টা আক্রমণ করেছেন সিধু। সিধুর এই ডিফেন্স কি তাঁকে রক্ষাকবজ দেবে? দেখা যাক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here