আধুনিক শিক্ষার মাধ্যমে দেশের সম্মানকে বিশ্বের দরবারে পৌছে দেওয়ার আহ্বান আমিরে শরিয়তের

0
40

কাছাড় টাইটেল মাদ্রাসায় খতমে বোখারি।
বরাক বাংলা নিউজ প্রতিনিধি ,  কাটিগড়া ২৯ জানুয়ারী:
 দেশকে উন্নতির শিখরে পৌঁছে দিতে ছাত্রসমাজ

কে বলিষ্ঠ ভূমিকা নিতে হবে। ছাত্ররা দেশ গড়ার কারিগর।আজকের ছাত্র আগামী দিনের ভবিষ্যত। শিক্ষার মানকে ত্বরান্বিত করতে ছাত্রদের গুরুত্ব অপরিসীম। প্রতিযোগিতামূলক শিক্ষার মাধ্যমে দেশের মানকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দিতে ছাত্রদেরকে আহ্বান জানালেন উওরপূর্ব ভারত এমারতে শরয়ীয়াহ ও নদওয়াতুত্ তামীরের আমীরে শরিয়ত তথা বরাক উপত্যকার সর্বজনশ্রদ্বেয় ব্যক্তিত্ব ডঃ আল্লামা তৈয়ীবুর রহমান বড়ভূইয়া সাহেব।রবিবার কাছাড় জেলা এমারতে শরয়ীয়াহ ও নদওয়াতুত্ তামীরের ৪২ তম বার্ষিক সম্মেলন ও কাছাড় টাইটেল মাদ্রাসার ২০ তম বার্ষিক দস্তারবন্দি অনুষ্ঠান ও খতমে বোখারি শরীফে কয়েক সহস্রাধিক লোকের উপস্থিতিতে আমিরে শরিয়ত  আরোও বলেন, শিক্ষা ছাড়া কোনও জাতির অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা সম্ভব নয়। শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষা মানুষকে অন্ধকার জগত থেকে আলোর জগতে টেনে আনতে সক্ষম হয়। শিক্ষার বিকাশের মশাল হাতে নিয়ে  উত্তীর্ণ ছাত্রদেরকে অগ্রগামী হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। ছাত্রদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ইসলামে শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম। পবিত্র কোরানে প্রথম অক্ষর হল ইক্বরা অর্থাৎ (পড়ো)। তিনি ছাত্রদেরকে পবিত্র কোরানের আদর্শে আদর্শিত হয়ে এবং বিশ্বনবীর পদাঙ্ক অনুসরন করে চলে শিক্ষার বিকাশ এবং বিস্তার লাভ করে মানবসেবা, সমাজসেবা, দেশপ্রেম এবং সৃষ্টিকোলের প্রতিটি জীবকে স্নেহ মমতার চোখে দেখার অনুরোধ জানান।
এদিনের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সারগর্ভ বক্তব্য রাখেন উত্তরপ্রদেশ দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসার ফিক্কাহ শাস্ত্রবিধ মওলানা সলমান বিজনুরী। তাঁর বক্তব্যে স্থান পায় মুসলিম সমাজে শিক্ষার হার কম থাকার প্রসঙ্গ। মওলানা সলমান বিজনুরির মতে, মুসলিমরা কখনোও হিংসায় জড়িত থাকতে পারে না, কারো ক্ষতি সাধন করতে পারে না। এমনকি কোনও কথা বার্তার মাধ্যমেও অন্যকে কষ্ট দিতে পারে না। এবিষয়ে হাদিস ও কোরান থেকে শুনিয়ে দেন ঐশ্য বাণী।শুধু শিক্ষিত হলে হবেনা,  সুশিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। নিজের বিবেককেও শিক্ষিত করে তুলতে হয়। সুশিক্ষায় শিক্ষিত না হলে সমাজ ও দেশের অগ্রগতি সম্ভব নয়। দেশ ও সমাজের কল্যাণ শুধুমাত্র শিক্ষিত মানুষ দিয়েই সম্ভব। বর্তমান সময়ে মুসলমানদের নানা হয়রানি প্রসঙ্গে তিনি বলেন যে, মুসলমানরা সঠিক ভাবে ইসলামের রীতি নীতি মেনে চললে এমনিতেই এসব সরে যাবে। আক্ষেপের সুরে তিনি আরোও বলেন, আফসোস হচ্ছে মুসলমানরা আজ নবীর আদর্শ ও সাহাবায় কেরামদের আদর্শ থেকে বিচ্যুত হওয়ার কারণে সময়ে সময়ে নানা ধরণের অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। উপস্থিত শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে মওলানা সলমান বিজনুরী আরোও বলেন, নিজেদের অন্তর থেকে ঘৃণা বিদ্বেষ দূর করে, সহিহ আকিদা নিয়ে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ জামাতের সহিত আদায় করতে উপস্থিত স্রোতাদেরকে বলেন।  মুসলমানরা যেদিন প্রতিটি মুহুর্তে নবী (দঃ) এর অনুসরণ করে চলবে, সেদিন আর তাঁরা লাঞ্চিত ও অবহেলিত হবেনা।
   নিজের পাড়া প্রতিবেশী গরীব অমুসলমান হলেও এদের খাওয়া ঠিকমতো হচ্ছে কিনা এসব খেয়াল রাখতে আদেশ দেয় ইসলাম, বলেন মওলানা সালমান বিজনুরী। মুসলমানদের অন্তরে এক তিল পরিমাণ হিংসা থাকলে প্রকৃত মুসলমান বলে গণ্য হবে না বলেন তিনি। এদিকে, এ অনুষ্ঠানে কাছাড় টাইটেল মাদ্রাসার ৬৫ জন ছাত্রকে পাগড়ি প্রদান করা হয়। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ সিলেটের জামিয়া আয়েশা সিদ্দিকা মাদ্রাসার শায়খুল হাদিস মওলানা মখলিছুর রহমান কাসিমি, দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মওলানা আশরাফ আব্বাস, উত্তরপূর্ব ভারত এমারতে শরয়ীয়াহ ও নদওয়াতুত্ তামীরের সাধারণ সম্পাদক মওলানা ইউসুফ আলী, কাটিগড়ার প্রাক্তন বিধায়ক মওলানা আতাউর রহমান মাঝারভুইয়া, আলজামিয়াতুল ইসলামীয়া বদরপুর টাইটেল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, কালাইন আঞ্চলিকের কাজিয়ে শরিয়ত মওলানা জাবির হোসেন,  জামিরা টাইটেল মাদ্রাসার মওলানা জলাল উদ্দিন চৌধুরী, ত্রিপুরা রাজ্যিক এমারতে শরয়ীয়াহ ও নদওয়াতুত্ তামীরের সভাপতি মওলানা আব্দুল্লাহ,  কাছাড় জেলা কাজিয়ে শরিয়ত মওলানা মোহাম্মদ আলী লস্কর, মওলানা ফজলুর রহমান লস্কর প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here