• Breaking News

    Breaking News
    Loading...

    শিলচর বিমানবন্দরে নামতেই তৃণমূল প্রতিনিধিদের বাধা পুলিসের, উঠল মারধরের অভিযোগ

    শিলচর বিমানবন্দরে পা রাখতেই তৃণমূল প্রতিনিধিদের আটকে দিল অসম পুলিস। জানা যাচ্ছে, এরপরই পুলিসের সঙ্গে বাদানুবাদ জড়িয়ে পড়েন  তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিনিধিরা। এই মুহূর্তে বিমানবন্দের বসেই অবস্থান বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন  অসমের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আসা তৃণমূলের ৮ প্রতিনিধি।

    বিমানবন্দরে তৃণমূলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে অভব্য আচরণ করার অভিযোগ উঠেছে অসম পুলিসের বিরুদ্ধে। তৃণমূল সাংসদ কাকলি ঘোষদিস্তার ২৪ ঘণ্টা ডট কমকে ফোনে বলেন, দেখে মনে হচ্ছে এখানে যেন রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করেছে অসম সরকার। অভিযোগ, তাঁদের গায়ে হাত তোলা হয়েছে। তৃণমূল সাংসদ অভব্য আচরণের অভিযোগ তুলেছেন সোনোওয়াল পুলিসের বিরুদ্ধে।  তৃণমূলের দাবি, তাঁরা দেশের সাংসদ। দেশের যে কোনও জায়গায় যাওয়ার অধিকার রয়েছে তাঁদের। জানা যাচ্ছে, সাংবাদিকদের ও প্রবেশাধিকার দিচ্ছে না পুলিস।


    তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দুশেখর বলেন, "বিমানবন্দরে নামতেই আমাদের জিনিসপত্র সরিয়ে দেওয়া হয়। আমাদের সঙ্গে আরও ৭১ জন যাত্রী এসেছিলেন। তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হলেও আমাদেরকে আটক করে অসম প্রশাসনের আধিকারিকরা।" তৃণমূল নেতার অভিযোগ, বাকি যাত্রীদের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি হল না কেন? তিনি বলেন, "আমরা জানতাম এখানে ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। তাই দু'জন করে প্রতিনিধি গিয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করে। কিন্তু তাঁরা ১৪৪ ধারা নথি দেখিয়ে জানান, ওপরওয়ালার নির্দেশ।কিছু করার নেই।" তাঁর আরও অভিযোগ পুলিস তাঁদের মারধর করে। সে ছবি রয়েছে বলে তৃণমূল প্রতিনিধিদের দাবি।

    উল্লেখ্য, NRC বিতর্কের মধ্যেই বৃহস্পতিবার অসম যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূলের প্রতিনিধিদল। সেখানে একটি কনভেনশনে যোগ দেওয়ার কথা দলের সদস্যদের। তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবার ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদল কাছাড় জেলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখবে। দলে রয়েছেন ৬ সাংসদ, ১ মন্ত্রী ও ১ বিধায়ক। প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ফিরহাদ (ববি) হাকিম। শিলচরে একটি ছোট সভা করার কথা রয়েছে তাঁদের। তবে কাছাড় জেলায় ১৪৪ ধারা জারি থাকায় সভা শেষ পর্যন্ত হবে কি না তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।
    কাছাড় প্রশাসনের তরফে ডেপুটি কমিশনার এস লক্ষ্মণন বলেছেন, সভার কোনও খবর তাঁদের কাছে নেই। কেউ কোনও অনুমতিও চায়নি। তবে ১৪৪ ধারা ভেঙে কেউ সভা করতে চাইলে বাধা দেবে প্রশাসন। অসম প্রশাসনসূত্রে স্পষ্ট বার্তা, জাতীয় নাগরিক পঞ্জির কাজ বাধা পায় এমন কোনও কাজ করতে দেবে না তারা। শিলচর সফর সেরে শুক্রবার গুয়াহাটি যাওয়ার কথা তৃণমূলের প্রতিনিধিদলের।


    No comments